দ্বিমুখী লড়াইয়ের অপেক্ষায় হাতিয়াবাসী


নোয়াখালীর দক্ষিণ বঙ্গোপসাগর ও মেঘনা নদীঘেরা দ্বীপ উপজেলা হাতিয়াকে নিয়ে গঠিত হয়েছে নোয়াখালী-৬ আসন। এ উপজেলায় রয়েছে একটি পৌরসভা ও তিনটি প্রশাসনিক এলাকাসহ ১২টি ইউনিয়ন। এ আসনে মোট ভোটার সংখ্যা দুই লাখ ৪৪ হাজার ৭৪৫ জন। আসনটির অন্যতম বৈশিষ্ট হচ্ছে, ব্যক্তিকেন্দ্রিক রাজনীতি।

রাজনৈতিক সংঘাত ও সহিংসতার কারণে বেশ আলোচিত এই আসনটি। আসনটিতে আওয়ামী লীগের বর্তমান সংসদ সদস্য আয়েশা ফেরদৌসের মনোনয়ন নিশ্চিত হওয়ায় বিএনপি প্রার্থী প্রকৌশলী মোহাম্মদ ফজলুল আজিমের সাথে ভোটযুদ্ধে দ্বি-মুখী লড়াই হবে বলে সম্ভাবনা দেখছেন হাতিয়াবাসী।

জানা গেছে, আগামী ৩০ ডিসেম্বর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন সামনে রেখে চলছে প্রার্থীদের প্রচার-প্রচারণা। আসনটি আওয়ামী লীগের শক্ত ঘাঁটি হলেও দলীয় কোন্দলে দিশেহারা সাধারণ নেতা-কর্মীরা। এ সুযোগকে কাজে লাগিয়ে আসনটি উদ্ধার করতে চাইছেন সাবেক সংসদ সদস্য ও বিএনপি প্রার্থী প্রকৌশলী মোহাম্মদ ফজলুল আজিম। তবে, এলাকায় ও কর্মী সমর্থকদের সাথে তার যোগাযোগ বিচ্ছিন্নতা ভোটে প্রভাব ফেলতে পারে বলে মনে করছেন অনেকেই। অন্যদিকে বর্তমান সাংসদ আয়েশা ফেরদৌস তার আসন ধরে রাখার চেষ্টা করছেন। ব্যাপক জনপ্রিয়তাও রয়েছে আয়েশা ফেরদৌসের।

এই আসনে স্বাধীনতার পর থেকে বিভিন্ন সময় নির্বাচিত সংসদ সদস্যরা হলেন, ১৯৭৩ ও ১৯৭৯ সালে স্বতন্ত্র প্রার্থী আমিরুল ইসলাম কালাম, ১৯৮৬ ও ১৯৮৮ সালে জাতীয় পার্টি থেকে মোহাম্মদ আলী, ১৯৯১ সালে আওয়ামী লীগের সভাপতি অধ্যাপক ওয়ালী উল্যাহ, ১৯৯৬ ও ২০০৮ সালে প্রকৌশলী মোহাম্মদ ফজলুল আজিম, ২০১৪ সালে আয়েশা ফেরদৌস আলী।

আয়েশা ফেরদৌস এমপি জানান, আমি হাতিয়ার সাড়ে ছয় লাখ মানুষের সুখে-দুঃখে আছি এবং ভবিষ্যতেও থাকব। আমার রাজনীতির একমাত্র লক্ষ্য হচ্ছে, মেঘনাবেষ্টিত হাতিয়াবাসীর সার্বিক উন্নয়নে কাজ করা।

জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সুবর্ণচর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ খায়রুল আনম সেলিম জানান, সবার দায়িত্ব হবে দলীয় প্রার্থীর পক্ষে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করা এবং বিপুল ভোটের ব্যবধানে দলীয় প্রার্থীর জয় নিশ্চিত করা।

বিএনপির ভাইস-চেয়ারম্যান ও তৃণমূল সমন্বয়ক মোহাম্মদ শাহজাহান জানান, হাতিয়া আসনে এবার প্রার্থিতা পরিবর্তন হয়ে সেখানে সাবেক এমপি প্রকৌশলী ফজলুল আজিম বিএনপি থেকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন। শরিকদের সাথে আমাদের চমৎকার যোগাযোগ রয়েছে। আসনটিতে শরিকদের কোনো প্রার্থী না থাকায় আমরা টেনশনমুক্ত।

উল্লেখ্য, ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির নির্বাচনে আওয়ামী লীগ প্রার্থী আয়েশা ফেরদৌস প্রায় ৪০ হাজার ভোটের ব্যবধানে জয়লাভ করেন।

About alokitonoakhali