সাম্প্রতিক




নোয়াখালীতে সন্ত্রাসী হামলা ও ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদে যুবলীগ নেতার সংবাদ সম্মেলন ও এলাকাবাসীর বিক্ষোভ

আলোকিত নোয়াখালী: Senior Editor | সংবাদ টি প্রকাশিত হয়েছে : ১৮. জুলাই. ২০২০ | শনিবার

নোয়াখালীতে সন্ত্রাসী হামলা ও ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদে যুবলীগ নেতার সংবাদ সম্মেলন ও এলাকাবাসীর বিক্ষোভ

নোয়াখালী প্রতিনিধি: নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক ইভটিজিংকারীদেরকে বাধা দেওয়ায় তার ছোট ভাইয়ের উপর সন্ত্রাসী হামলা, দোকানপাট ভাংচুরের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন ও এলাকাবাসীর বিক্ষোভ।
গতকাল শুক্রবার বিকালে করিমপুর নুরানী মসজিদ মাঠে এক সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যের মাধ্যমে বেগমগঞ্জ উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক মোঃ জাহাঙ্গীর আলম জানায়, তার ভাই জাবেদ হাসান ইভটিজিংকারীদের থেকে ঘটনাটি জানতে চাইলে মহিন ও সুমনবাহিনী চেনি দিয়ে কুপিয়ে জাবেদ হাসানকে গুরুত্বর আহত করেন। এ ঘটনায় আরও ৪ জন আহত হয়েছেন। সন্ত্রাসীরা যাওয়ার পথে তার মালিকীয় দোকানসহ সিঙ্গার রোডে প্রায় ২০/২৫টি দোকান ভাংচুর করেন। উক্ত ঘটনার মামলা হতে রেহাই পেতে মঙ্গলবার বিকালে বহিরাগত লোকজন নিয়ে ভুল বুঝিয়ে জড়ো করে বিক্ষোভ মিছিল করে। বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়াকে তার বিরুদ্ধে মিথ্যা বানোয়াট তথ্য দিয়ে বিভ্রান্তকর সংবাদ পরিবেশন করে। এতে তার দীর্ঘদিনের অর্জিত সুনাম ক্ষুণœ হয়েছে। সে প্রকাশিত সংবাদের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান।
ইভটিজিং-এর শিকার গৃহিনী স্বর্ণালী বেগম জানায়, গত ১০ জুলাই শুক্রবার সন্ধ্যায় সে চৌমুহনী বাজার হতে বাড়ী যাওয়ার পথে এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসী, ছিনতাইকারী, ইভটিজিংকারী ও থানার অভিযুক্ত চোর আলো, অপুসহ পিস্তল বাবু’র নেতৃত্বে কয়েক জন লোক হঠাৎ করে তার পথের গতি রোধ করে তাকে অকথ্য ভাষায় গালমন্দ শুরু করে। তার সাথে থাকা স্বর্ণের চেইন, মোবাইল ও নগদ টাকা লুট করে নিয়ে যায়। বিষয়টি তার স্বামী মোঃ মানিক মিয়াকে জানালে তার চাচাতো দেবর মোঃ জাবেদ হাসানসহ বিষয়টি জানতে সিঙ্গার রোডে গেলে ইভটিজিংকারীরা মহিন ও সুমন বাহিনী নেতৃত্বে ক্ষিপ্ত হয়ে তাদের উপর আক্রমন করে বলে জানান। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন চৌমুহনী পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবু বকর ছিদ্দিক টিপু, সাংগঠনিক সম্পাদক আবুল খায়ের, পৌর শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক আবদুর রহিম, ৪নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি শাহজাহান সাজু, সাধারণ সম্পাদক জামাল উদ্দিন, ৭নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মাসুদ, ৯নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি মিন্টু, সাধারণ সম্পাদক নান্টুসহ আরো অনেকে। সংবাদ সম্মেলন শেষে এলাকাবাসীর পক্ষ থেকে প্রায় সহ¯্রাধিক নারী পুরুষ বিক্ষোভ মিছিল বের করে। মিছিলটি ঢাকা-লক্ষীপুর সড়ক প্রদক্ষিন শেষে করিমপুর হয়ে সভাস্থলে এসে শেষ হয়। উক্ত ঘটনায় জাবেদসহ ৫জন আহত হয়। উক্ত সন্ত্রাসীদেরকে আইনের মুখোমুখি করার জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর জোর হস্তক্ষেপ কামনা করেন।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন, চৌমুহনী পৌর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আবু বক্কর ছিদ্দিক টিপু, করিমপুর ৪নং ওয়ার্ড পৌর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ জামাল উদ্দিন, শ্রমিক লীগ নেতা মোঃ আব্দুর রহিমসহ আওয়ামীলীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগসহ এলাকাবাসী।
পরে, এলাকাবাসী এক বিক্ষোভ মিছিল বের করে মিছিলটি ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক ও করিমপুরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে সভাস্থলে এসে শেষ হয়। #

নোয়াখালী প্রতিনিধি
তাং- ১৮.০৭.২০

এই বিভাগের আরো খবর Posts