প্রথম মুসলিম নারী হিসাবে হিজাব পরে কোরআন ছুঁয়ে শপথ নিয়ে কংগ্রেসে ঢুকলেন ইলহান


কেনিয়ার শরণার্থী শিবির ছাড়ার ২৩ বছর পর ইলহান ওমরই হলেন মার্কিন ইতিহাসের প্রথম নারী যিনি হিজাব পরে কংগ্রেসে হাজির হয়েছেন।

কংগ্রেসের একজন মুসলিম নারী হিসেবে হিজাব পরে শপথ নিয়ে ইতিহাস গড়তে দেশটির রীতিতে পরিবর্তন আনতে হয়েছে।

এরপর বৃহস্পতিবার হিজাব পরে পবিত্র কোরআন ছুঁয়ে শপথ নেন তিনি। গত ১৮১ বছর ধরে মার্কিন কংগ্রেসে হিজাব পরা নিষিদ্ধ ছিল।

গত বছরের নভেম্বরে এক টুইটার পোস্টে তিনি বলেন, কেউ আমার ওপর হিজাব চাপিয়ে দেননি। আমি নিজেই এটা পরছি।

যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যবর্তী নির্বাচনে কংগ্রেসের নিম্নকক্ষ প্রতিনিধি পরিষদে নির্বাচিত প্রথম দুজন মুসলিম নারীর একজন হিসেবে আগেই ইতিহাস গড়েছিলেন মিনেসোটার ডেমোক্র্যাটিক পার্টির প্রার্থী ইলহান।

এবার হিজাব পরে কংগ্রেসে গিয়ে ও কুরআনে হাত রেখে শপথ নিয়ে তিনি আরেক নজির সৃষ্টি করলেন।

প্রতিনিধি পরিষদ পরিচালনায় ডেমোক্র্যাটরা নতুন কিছু নিয়ম চালু করেছে। এর আওতায় ধর্মীয় কারণে মাথা ঢেকে রাখার ওপর নিষেধাজ্ঞা আনুষ্ঠানিকভাবে তুলে দেয়া হয় বৃহস্পতিবার।

এরই সুবাদে এদিন হিজাব পরে শপথ নেন ইলহান ওমর। তার হাতে ছিল তসবিহও।

নতুন নিয়মে ভোটের জন্য হাউস ফ্লোরে থাকার সময় এবং সাধারণ অধিবেশনে বক্তৃতা দেয়ার সময়ও হিজাব পরা যাবে। তবে বেসবল ক্যাপ কিংবা কাউবয় হ্যাট পরে এখনো কংগ্রেসে প্রবেশ নিষিদ্ধ রয়েছে।

বৃহস্পতিবার ইলহানের সঙ্গে সঙ্গে প্রতিনিধি পরিষদে শপথ নেন আরেক মুসলিম নারী রাশিদা তালিবও। ফিলিস্তিনি এ মুসলিম নারী ফিলিস্তিনের ঐতিহ্যবাহী পোশাক পরে কুরআনে হাত রেখে শপথ নিয়েছেন।

ফিলিস্তিনি অভিবাসী পরিবারের মেয়ে রাশিদা তালিব ২০০৮ সালে প্রথম মুসলিম নারী হিসেবে মিশিগান আইন পরিষদের সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন।

গতবছর নভেম্বরের মধ্যবর্তী নির্বাচনে মিশিগান থেকে কংগ্রেসে জয়ী হয়ে তিনি ইতিহাস গড়েন।

About alokitonoakhali