ফাঁস হলো খাশোগির খণ্ড বিখণ্ড লাশের ছবি


তুরস্কে সৌদি কনস্যুলেটের অভ্যন্তরে সৌদি আরবের রাজতন্ত্র বিরোধী সাংবাদিক জামাল খাশোগিকে হত্যার সর্বশেষ প্রমাণ হিসেবে বেরিয়ে এসেছে মরদেহ টুকরো করার ছবি।

খাশোগির মরদেহের ছিন্ন বিছিন্ন অংশের ছবি প্রকাশ করেছে আল সুরা নামের একটি অনলাইন গোষ্ঠী। লাশ টুকরো করার সময় এসব ছবি তোলা হয়েছিলো বলে দাবি করেছে ওই গোষ্ঠীটি।

আল সুরা হচ্ছে ইরাক ও মধ্যপ্রাচ্য নিয়ে কাজ করা সাংবাদিক, অ্যাক্টিভিস্ট ও স্বাধীন লেখকদের জন্য উন্মুক্ত একটি প্লাটফর্ম।
প্রতিবেদেনে বলা হয়েছে, এই খুনের ঘটনা ধামাচাপা দেয়ার জন্যই হত্যার পর খাশোগির মরদেহ টুকরো টুকরো করা হয়। তুরস্কের তদন্ত কর্মকর্তার মাধ্যমে এসব ছবি তাদের হাতে এসেছে বলে দাবি করেছে আল সুরা। তবে তাদের এ দাবিটি এখনও কোনো নিরপেক্ষ সূত্রের দ্বারা যাচাই করা সম্ভব হয়নি।

খাশোগি হত্যার প্রায় দেড় মাসের বেশি সময় পর প্রথমবারের মতো তার মরদেহের ছবি প্রকাশিত হলো।

গত ২ অক্টোবর তালাক সংক্রান্ত কাগজপত্র সংগ্রহের জন্য ইস্তাম্বুলের সৌদি কনস্যুলেটে যান খাশোগি। এরপর থেকে তাকে আর দেখা যায়নি। কেননা ওই কনস্যুলেটের অভ্যন্তরেই খুন হন খাশোগি।

এই হত্যাকাণ্ডে অংশ নিয়েছিলেন সৌদি গোয়েন্দা সংস্থার কর্মকর্তাদের নিয়ে গঠিত ১৫ সদস্যের কিলিং স্কোয়াড। খাশোগি হত্যার জন্যই তারা ঘটনার দিন তুরস্ক গিয়েছিলেন। কিলিং মিশন সম্পন্ন হওয়ার পর তারা রিয়াদ ফিরে আসেন।
এ সম্পর্কে তুর্কি তদন্ত কর্মকর্তারা জানান, খাশোগিকে হত্যার পর তার মরদেহ টুকরো টুকরো করে তা নিশ্চিহ্ন করতে এসিডের মাধ্যমে গলিয়ে ফেলা হয়।

অনেকে তালবাহানার পর খাশোগি হত্যার কথা স্বীকার করেছে সৌদি সরকার। তবে এ ঘটনায় সৌদি যুবরাজের জড়িত থাকার অভিযোগটি তারা এখনও মেনে নেয়নি।

এদিকে এ হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত থাকার দায়ে সম্প্রতি ১১ ব্যক্তিকে অভিযুক্ত করেছে সৌদি কর্তৃপক্ষ। এদের মধ্যে পাঁচজনকে মৃত্যুদণ্ড দেয়ারও ঘোষণা দেয়া হয়েছে।

সূত্র: আল সুরা

About alokitonoakhali