মানুষের বিশ্বাস ও ভালোবাসাকে পুজি করে এগিয়ে যাচ্ছেন তরুন সমাজ সেবক আকবর হোসেন মিঠু

মানুষের বিশ্বাস ও ভালোবাসাকে পুজি করে এগিয়ে যাচ্ছেন তরুন সমাজ সেবক আকবর হোসেন মিঠু আলা উদ্দিনঃ নাম আকবর হোসেন মিঠু।পেশায় একজন ব্যাংকার। প্রিমিয়ার ব্যাংকের সিনিয়র এক্সিকিউটিভ অফিসার হিসেবে বর্তমানে কর্মরত আছেন পাশাপাশি জাগুরা কর্পোরেশন এর স্বত্তাধিকারী তিনি।এলাকার সর্বজনের কাছে বিশেষ ভাবে পরিচিত একজন সমাজ সেবক হিসেবে। চাটখিল উপজেলার বাদুলী গ্রামে এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহন করেন। পারিবারিক জীবনে ২ বোন মা আর স্ত্রী কে নিয়ে সংসার । বাবার চাকুরির সুবাধে নোয়াখালীর কোম্পানিগঞ্জের বসুরহাট উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এস এস সি পাশ করার পর উচ্চ মাধ্যমিক সম্পন্ন করেন চাটখিল পাঁচগাঁও মাহবুব সরকারি কলেজ থেকে। বর্তমানে তিনি একই কলেজের অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশনের সাংস্কৃতিক সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। পাশাপাশি মহান মুক্তিযুদ্ধে বীরত্বপূর্ণ অবদান রাখা মুক্তিযোদ্ধার সন্তানদের নিয়ে গঠিত “আমরা মুক্তিযোদ্ধার সন্তান” (একটি অরাজনৈতিক সংগঠন)। উক্ত সংগঠনের কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি হিসেবে চাটখিল তথা নোয়াখালীর প্রতিনিধিত্ব করছেন তিনি। মিডিয়াতেও রয়েছে তার ব্যপক পদচারণা সম্মিলিত সাংবাদিক পরিষদ এর কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি হিসেবেও সুনামের সহিত দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছেন। শিক্ষা ক্ষেত্রে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের ম্যনেজিং কমিটির সদস্য সহ স্কলার ইংলিশ মিডিয়ায় স্কুলের এক্সিকিউটিব শেয়ার হোল্ডার হিসেবে আছেন তিনি। এছাড়াও ব্যাবসায়ীদের সংগঠন ঢাকা চেম্বার অফ কমার্স এর সদস্য, নোয়াখালী চেম্বার অফ কমার্স এর সদস্য,নোয়াখালী ক্লাবের ইসি মেম্বার, ঢাকাস্থ বৃহত্তর নোয়াখালী জেলা সমিতি ও দরিদ্র কল্যাণ তহবিল এর আজিবন সদস্য, নোয়াখালী জেলা সমিতির আজিবন সদস্য তিনি। তার বাবা হোসাইন আহাম্মদ একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা। তিনি মুক্তিযুদ্ধ চলাকালীন সময়ে গভর্নর হাউজে চাকুরীরত থেকে মুক্তিযোদ্ধাদের সহযোগী হিসেবে কাজ করতেন। মুক্তিযোদ্ধাদের সহযোগীতা করার কারণে দীর্ঘ আট মাস ওনাকে চাকুরী থেকে অব্যহতিতে রাখা হয়েছিল। গ্রামে ফিরেও তিনি মুক্তিযোদ্ধাদের সাথে কাজ করে গেছেন। চাকুরী জীবনে তিনি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের (পি এ) চাটখিলের কৃতি সন্তান রফিক উল্লাহ চৌধুরীর (পি এ) হিসেবেও বেশ কিছু দিন চাকুরী করেছিলেন। পরবর্তীতে আকবর হোসেন মিঠুর উদ্যোগে চাটখিল উপজেলার বাদুলী গ্রামে ‘বীর মুক্তিযোদ্ধা হোসাইন আহাম্মদ সড়ক’ নামে একটি গুরুত্বপূর্ণ সড়কের নামকরণও করা হয়। পাশাপাশি বর্তমান জেলা প্রশাসক (ডিসি) তন্ময় দাসের উদ্যোগে ডিসি অফিসের সামনে “মুক্তিযোদ্ধা হোসাইন আহাম্মদ” নামে একটি ফোয়ারা নির্মানের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। আকবর হোসেন মিঠু নিজের অর্জিত অর্থ-সম্পদের একটা অংশ প্রতি বছর চাটখিল-সোনাইমুড়ির শিক্ষা, স্বাস্থ্য, ধর্মীয় ও সাংস্কৃতিক ক্ষেত্রে ব্যয় করে থাকেন,তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে, চাটখিল উপজেলা জামে মসজিদ,চাটখিল উপজেলা যাকাত ফান্ড,খিলপাড়া হাইস্কুল জামে মসজিদ, বাদুলী বড় মসজিদ,বাদুলী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়,বাদুলী ঈদগাহ,আবিরপাড়া হাই স্কুল,নাহারখিল এতিমখানা,সাধেরখিল এতিমখানা,সাধেরখিল মসজিদ, সাধেরখিল কাজিম উদ্দিন মুন্সী এতিমখানা, ঘাসিপুর এতিমখানা,চাটখিল পৌরসভা, পৌর ৬নং ওয়ার্ড ক্লাব ইত্যাদি। এছাড়াও নিজের ব্যক্তিগত উদ্যোগে সকল দায়িত্ব নিয়ে বিয়ে দেওয়া ও বিয়ে-শাদীতে আর্থিক সহযোগিতা,অসুস্থ-দুস্থদের সহায়তা অব্যাহত রয়েছে। চাটখিলের শ্রীনগর,নোয়াখলা,কড়িহাটি সহ চাটখিল-সোনাইমুড়ি উপজেলার আওয়ামী-যুবলীগের বেশ কিছু অফিস নিজস্ব অর্থায়নে করা সহ বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি দিবস পালনে তার রয়েছে ব্যাপক অবদান।তাছাড়াও বর্তমানে চাটখিল থানার সৌন্দর্য বর্ধনে ব্যপকভাবে সহযোগিতা করে যাচ্ছেন তিনি। পাশাপাশি এলাকার সর্বস্তরের মানুষের কল্যাণেও অভিরাম কাজ করে যাচ্ছেন তিনি।জনগনের ভালোবাসা আর আস্থা পুজি করে প্রতিনিয়ত সামনে অগ্রসর হচ্ছেন আকবর হোসেন মিঠু। তিনি বলেন, আমি সব সময় আমার বাবার আদর্শকে লালন করার চেস্টা করি। আমার বাবা আমূত্যু মানুষের কল্যাণে করে গেছেন। সবাই আমার পরিবারের সদস্যদের জন্য দোয়া করবেন, কিছুদিনের মধ্যে আমরা পরিবারের সকল সদস্য ভ্রমণের উদ্দেশ্য আমেরিকা যাচ্ছি, সুস্থ স্বাভাবিকভাবে ফিরে এসে আমরা যেন পুনরায় চাটখিলের মানুষের জন্য আমার সকল প্রচেষ্টাকে অব্যাহত রাখতে পারি।

About alokitonoakhali