লক্ষ্মীপুরে জনতা ব্যাংক ম্যানেজার ঘুষের টাকা ফেরত দিলেন

স্টাফরিপোর্টার -জনতা ব্যাংক লক্ষ্মীপুরের দালাল বাজার শাখার ম্যানেজার দীনেশ চন্দ্র পাল ও একই শাখার ঋণ কর্মকর্তা মোঃ রায়হান আজ ৩১ মার্চ গণ মাধ্যম কর্মীদের তোপের মুখে ৭২ বছর বয়স্ক  ভুক্তভোগী বৃদ্ধ কৃষক আব্দুল হাই থেকে নেয়া ঘুষের =৪০০০/ টাকা ফেরত দিতে বাধ্য হলেন।
দুদকের নোয়াখালী উপ-পরিচালক বরাবরে ভুক্তভোগীর লিখিত অভিযোগর সূত্র ধরে গন মাধ্যম কর্মীরা উক্ত ব্যাংকের শাখায় ২৮ মার্চ গিয়ে ম্যানেজারের কাছে এ বিষষে জানতে চাইলে। তিনি প্রথমে অভিযোগ অস্বীকার করেন এবং পরে এক পর্যায়ে অভিযোগকারীকে নিয়ে আসতে বলেন। ৩১ মার্চ  গন মাধ্যম কর্মীদের সামনে বৃদ্ধ কৃষক আবদুল হাইয়ের থেকে গত ২৮ মার্চ ম্যানেজার দীনেশ চন্দ্র’র কাছে তার উৎকোচ গ্রহনের =৩০০০/ টাকা ভুক্তভোগী (আঃ হাই) ফেরত  চাইলে ম্যানেজার দীনেশ চন্দ্র তা তাকে ফেরত দেন এবং ঋন কর্মকর্তা রায়হানও ঘুষ নেয়া =১০০০/টাকা অভিযোগকারী কৃষক আঃ হাই কে অনুরূপ ভাবে ফেরত দেন।
ঘটনাক্রমে বিষয়টি অন্য গন মাধ্যম কর্মীদের ভিতর ছড়িয়ে পরে। এক পর্যায়ে আরো সংবাদকর্মী উপস্থিত হলে সকল গন মাধ্যম কর্মীরা অভিযুক্ত ম্যানেজারের কাছে কৃষি ঋনে বৃদ্ধ কৃষকের নিকট থেকে কেন উৎকোচ গ্রহন করলের জানতে  চাইলে তিনি (দীনেশ চন্দ্র পাল) নীরব থাকেন। অন্যদিকে ঋন কর্মকর্তা রায়হান বলেন, কৃষক আবদুল হাইয়ের =৭০০০০/ টাকা ঋন পাশ করে দিলে তিনি আমাকে খুশি হয়ে এক হাজার টাকা দিয়েছিলেন।
সূত্রে জানা যায়, ভুক্তভোগী কৃষক আব্দুল হাই গত ২৯/১১/২০১৬ তারিখে লক্ষ্মীপুরের দালাল বাজার জনতা ব্যাংক শাখা থেকে =৪০,০০০/  টাকা কৃষি ঋণ নং বোর ২৬/২০১৬-১৭ নেন। পরবর্তিতে মেয়াদ শেষে গত ৩/৩/২০১৯ তারিখে সুদে আসলে মোট=৪৯,৮৯৯/ টাকা পরিশোধ করেন। এরপরে নতুনভাবে =৭০০০০/ টাকা ঋন পাওয়ার আবেদন করলে গত ২৭/৩/২০১৯ তারিখে উক্ত ব্যাংকের ম্যানেজার দিনেশ চন্দ্র পাল ৭০০০/ টাকা ঘুষ দাবী করে ভুক্তভোগীর ন্যাশনাল আইডি কার্ডের মূল কপি আটকিয়ে রাখেন।
বৃদ্ধ কৃষক আব্দুল হাইয়ের নতুন ঋণের =৭০০০০/ হাজার টাকা বর্তমানে অত্যান্ত জরুরী হওয়াতে তিনি ( আব্দুল হাই) নিরুপায় হয়ে এক আত্মীয়ের নিকট থেকে =৩০০০/ হাজার টাকা ধার এনে ম্যানেজার দীনেশ চন্দ্র পালকে ঘুষ দিয়ে অনুনয়-বিনয় করলে তিনি ভুক্তভোগী কে তার আইডি কার্ডটি ফেরত দেন। এরপরে ঋণ কর্মকর্তা রায়হান হোসেনের দাবীকৃত =২০০০/ঘুষের টাকার বিপরীতে একহাজার টাকা ঘুষ দিলে তারা আমাকে =৭০০০০/ টাকা কৃষি ঋণ বোর ২৮/২০১৮-১৯ মঞ্জুর করেন।
দালালবাজার জনতা ব্যাংক ম্যানেজার ও ঋন কর্মকর্তাকে =৪০০০/ টাকা ঘুষ দিতে বাধ্য হওয়ায় পেক্ষিতে ভুক্তভোগী কৃষক আবদুল হাই দুদকের নোয়াখালী অঞ্চল উপ পরিচালক বরাবরে অভিযোগ দায়ের করেছেন।
 দালাল বাজার ব্যাংকের ম্যানেজার দীনেশ চন্দ্র পাল ও লোন কর্মকর্তা মোঃ রায়হানের  বিরুদ্ধে গ্রাহকদের সঙ্গে দুর্ব্যবহারের বিস্তর অভিযোগ রয়েছে। ইদানীং কালে দেখা যায় গ্রাহকরা কোন কাজ নিয়ে তাদের কাছে গেলে ক্ষিপ্ত আচরণ করেন এই দু’জন কর্মকর্তা, ম্যানেজার পাঠান মাঠ কর্মকর্তার নিকট আবার তিনি পাঠান ম্যানেজারের নিকট, এভাবে প্রতিনিয়ত হয়রানি হচ্ছে গ্রাহকরা।  গ্রাহকরা কোন বিষয়ে জানতে চাইলে বা ব্যাবস্থাপকের নিকট অভিযোগ করলে সুরাহা না করেই তাদেরকে প্রাইভেট ব্যাংকে চলে যেতে বলেন।
জানা যায়, এখানে যোগদানের পর থেকেই বেপরোয়া দীনেশ  চন্দ্র পাল ও  রায়হান, ছাত্রজীবনে একটি বিশেষ দলের রাজনীতি করেছেন এই পরিচয়ে যা খুশি তাই করছেন এই দুজন। তাদের দুর্ব্যবহারের কারণে ব্যাংকের গ্রাহকদের মধ্যে ব্যাপক ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। এতে করে ব্যাংকের সুনামও নষ্ট হচ্ছে।

About alokitonoakhali