লক্ষ্মীপুরে সেই কথিত রুহুল আমিন রায়পুরী পীরের বিরুদ্ধে হয়রানি মূলক মামলার অভিযোগ জিলানীর !

আলোকিত নোয়াখালী: alokitonoakhali | সংবাদ টি প্রকাশিত হয়েছে : ০৫. ফেব্রুয়ারি. ২০১৯ | মঙ্গলবার

লক্ষ্মীপুরে সেই কথিত রুহুল আমিন রায়পুরী পীরের বিরুদ্ধে হয়রানি মূলক মামলার অভিযোগ জিলানীর !


মোঃওয়াহিদুর রহমান (মুরাদ), বিশেষ প্রতিনিধি, লক্ষ্মীপুর।
রায়পুরে মিথ্যা মামলা দিয়ে সাবেক মেয়র ও বিএনপি নেতা এবিএম জিলানীকে হয়রানির অভিযোগ উঠেছে । জমি সংক্রান্ত মামলায় মঙ্গলবার নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির হয়ে জামিন চেয়েছেন। এ ঘটনায় বিচারের দাবীতে চরপাতা গ্রামের মামলাবাজ তথাাকথি পীর দাবী করা মাওলানা রুহুল আমিনের (৭৫) বিরুদ্ধে ফুসে উঠছে গ্রামবাসী।

গত বছরের ১৬ ডিসেম্বর মাওলানা রুহুল আমিন বাদী হয়ে সাবেক পৌরসভার মেয়র ও পৌর বিএনপির সভাপতি এবিএম জিলানী, তার ছেলে মেহেদী হাসান জিওন, ছোট ভাই প্রবাস ফেরত মোক্তার হোসেন জগলু, চরপাতা ইউপি সদস্য মোঃ হারুনুর রশিদ, গ্রামবাসী আব্দুল মজিদ, রেহানা আক্তার ও খাদিজা বেগমকে আসামী করে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে দেওয়ানী মামলা করেন। এ মামলা ছাড়াও রুহুল আমিন মেয়রের বিরুদ্ধে তিনটিসহ পরিবার ও গ্রামবাসীর বিরুদ্ধে ১১টি মামলা করে হয়রানি করছেন বলে গ্রামবাসী অভিযোগ করেন।

মেয়র এবিএম জিলানী জানান, কথিত মাওলানা রুহুল আমিন আমার পাশের গ্রামবাসী। তার বিরুদ্ধে তার প্রতিষ্ঠিত এতিমখানার অনিয়ম, দূর্নীতি ও গ্রামবাসীর বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করার একাধিক অভিযোগ রয়েছে। এগুলোর বিচার করতে গিয়ে তিনটি মামলা দিয়ে হয়রানি করছে। আদালতের প্রতি সম্মান দেখিয়ে বিচারকের কাছে জামিনের জন্য হাজির হয়েছি। এ মামলাসহ গত বছরের ২০ মার্চ ১৪ জন ও ১ আগষ্ট ২০ জন গ্রামবাসীর বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রাণী করছে। সেই দুই মামলায়ও আমাকে আসামী করা হয়েছে। গ্রামবাসীর বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দেওয়ায় বর্তমান ওসি একবার কারাগারে পাঠিয়েছেন।

এ বিষয়ে মাওলানা রুহুল আমিন বলেন, গত দু’বছর ধরে সাবেক মেয়র এবিএম জিলানীসহ তার পরিবার ও লোকজন আমাদের কোটি টাকা মূল্যের জমি দখল করে রেখেছে। মিথ্যা গাছ কাঁটার মামলা দিয়ে আমাকেও আমার পরিবারকে হয়রানি করছেন। আমার জমিগুলো পেতে আমি একাধিক মামলা করতে বাধ্য হয়েছি।

এই বিভাগের আরো খবর Posts